Breaking News
Home / টপনিউজ / নারীরা কেন শারীরিক সম্পর্কে জড়ায় জানেন?

নারীরা কেন শারীরিক সম্পর্কে জড়ায় জানেন?

Loading...

নারী-পুরুষের শারীরিক সম্পর্ক মানব সৃষ্টির সূচনা লগ্ন থেকেই। মানব সৃষ্টির ধারা পৃথিবীতে যতদিন অব্যাহত থাকবে, ততদিনই নারী-পুরুষের শারীরিক মিলনও অব্যাহত থাকবে। এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু আধুনিক যুগে মানুষের শারীরিক মিলন নিয়ে প্রতিনিয়তই নানান গবেষণা হচ্ছে।

সম্প্রতি নারীদের শারীরিক মিলন বা সম্পর্কে জড়ানো নিয়ে একটি গবেষণা হয়েছে। জানা গেছে, ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিস্ট সিন্ডি মেস্টন এবং ইভোল্যুশনারি সাইকোলজিস্ট ডেভিড বাস পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তের ১০০৬ জন নারীর সাক্ষাৎকার নিয়েছেন তাদের যৌন প্রেষণার বিষয়ে।

গবেষকরা বলছেন, ১০০৬ জন নারীর কাছ থেকেই বেরিয়ে এসেছে যৌনতার ২৩৭টি আলাদা আলাদা কারণ। তবে অনেকগুলো কারণের ব্যাপারে প্রায় সবাই একমত। আবার অনেকগুলো কারণ কয়েকজনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ।

তো দেখা যাক, কারণগুলো কী কী? মেস্টন ও বাস নারীদের যৌন-প্রেষণাগুলোকে স্বাভাবিকভাবেই তিন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছেন: শারিরীক, আবেগীয় এবং বস্তুবাদী কারণ।

প্রেষণার মধ্যে যেমন রয়েছে, নিজের আত্মবিশ্বাস বাড়ানো, সেল্ফ এস্টিম বৃদ্ধি, প্রেমিককে ধরে রাখা, তেমনি রয়েছে জোর-জবরদস্তির শিকার হওয়া পর্যন্ত।

বাস এবং মেস্টনকে প্রেষণার বিচিত্রতা অবাক করেছে। এর মধ্যে যেমন রয়েছে সম্পূর্ণ পরোপকারী উদ্দেশ্য, তেমনি সম্পূর্ণ বদ মতলবও পাওয়া গেছে কারো কারো মধ্যে। যেমন, কাউকে এস. টি.ডি তে আক্রান্ত করা।

এর মধ্যে যৌনতার প্রধান ১০টি কারণ তুলে ধরা হলো-

১. আনন্দ লাভের জন্য: অবভিয়াস! কিন্তু গবেষণার ফলাফল “মেয়েদের যৌনতা ভালবাসা তাড়িত, আর ছেলেদের যৌনতা ইন্দ্রিয়সুখ তাড়িত”, পশ্চিমা সমাজেপ্রচলিত এই মিথকে উড়িয়েদেয়। অর্ধেকেরও বেশি সংখ্যক নারীর কোন ধরণের রোমান্টিক রিলেশনশিপ না থাকা অবস্থায় শুধুইন্দ্রিয় সুখের জন্য সেক্স করতে আপত্তি নেই, বরং আগ্রহী। তবে কারো সাথে রোমান্টিক রিলেশনথাকা অবস্থায় ইন্দ্রিয় সুখের জন্য অন্য কারো সাথে সেক্স করার ব্যাপারে প্রায় ৮০ শতাংস নারীর ঘোরতর আপত্তি রয়েছে। অর্থাৎ সিঙ্গেল অবস্থায় রোমান্স বিহীন সেক্সে অনেকেই আগ্রহী হলেও পার্টনারের সাথে চিটিং কে তারা সমর্থন করেন না।

২. রোমান্স: এটাও অবভিয়াস। প্রেমে পড়লে আবেগতাড়িত হয়ে প্রেমলীলায় মত্ত হয়নি এরকমজুটি খুঁজে পাওয়া দুস্কর।

৩. পার্টনারকে ধরে রাখার জন্য: অনেক সময়ই নিজের আবেগের চেয়ে বড় হয়ে দাড়ায় পার্টনারকে ধরে রাখার প্রচেষ্টা। পার্টনারের আবেদনে সাড়া না দিলে সে ছেড়ে চলে যেতে পারে, এইধারণা থেকে অনেক সময়ই অনিচ্ছা সত্ত্বেও সাড়া দেয় ।

৪. অন্যের প্রেমিককে ছিনিয়ে আনার জন্য: অনেকে অন্য নারীর সাথে প্রকাশ্য রোমান্টিক সম্পর্ক থাকা সত্ত্বেও পুরুষদের আবেদনে সাড়া দেয় এই উদ্দেশ্যে যে পুরুষটি তার ‘পারফরমেন্সে সন্তুষ্টহয়ে’ বা অন্য কোন কারণে তার রোমান্টিক পার্টনারকে ত্যাগ করে নতুন নারীকে স্বীকৃতি দিবে।

৫. দায়িত্ববোধ হতে: অনেক নারীই তাদের সঙ্গীদের সকল ধরণের যৌন চাহিদা মেটানো দায়িত্ববলে মনে করে। সেক্ষেত্রে আবেগতাড়িত না হয়েও বা পার্টনার চলে যাওয়ার সম্ভাবণা না থাকাসত্ত্বেও সে দায়িত্ববোধ থেকে সাড়া দেয়।

৬. গৃহস্থলি কাজের বিনিময়ে: অনেক বদ টাইপের পুরুষরা নাকি সেক্স না করলে বাজার করুম না, ঘর রং করুম না, গৃহস্থালী আবর্জনা ফেলুম না এইসব বলে পার্টনারদের ব্লাকমেইল করে।

৭. করুণা করে: মানসিকভাবে ভেঙে পড়া কোন পরিচিতজনকে সান্তনা দেয়ার জন্যও নাকি মহীয়সীরা সেক্স করে থাকে।

Loading...

About admin

Check Also

স্ত্রী দুরে থাকলে স্বামী হস্তমৈথুন করলে কি গুনাহ হবে?

Loading... শাইখ ইবনে উছাইমিন (রহঃ) কে একবার জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, স্বামী-স্ত্রীর জন্য টেলিফোনে যৌন বিষয়ে …

3 comments

  1. This article will assist the internet people for creating new
    weblog or even a weblog from start to end.

  2. Thanks for the article post. Great.

  3. Muchos Gracias for your article post.Really thank you! Keep writing.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *