Breaking News
Home / টপনিউজ / মনু মিয়া মানুষের প্রতি নিঃস্বার্থ সেবাপরায়নতার অনন্য এক দৃষ্টান্ত

মনু মিয়া মানুষের প্রতি নিঃস্বার্থ সেবাপরায়নতার অনন্য এক দৃষ্টান্ত

Loading...

মনু মিয়া মানুষের প্রতি নিঃস্বার্থ সেবাপরায়নতার অনন্য এক দৃষ্টান্ত
মনু মিয়া মানুষের প্রতি নিঃস্বার্থ সেবাপরায়নতার অনন্য এক দৃষ্টান্ত – কারো মৃত্যুর সংবাদ পেলেই খুন্তি, কোদাল, ছুরি, দা, করাত ছেনাসহ নানান যন্ত্রপাতি নিয়ে ছুটে চলেন মৃত ব্যক্তির শেষ ঠিকানা সাজিয়ে দেন মনু মিয়া।

জীবনের দীর্ঘ ৬৪ বছরের ৪০টি বছরই পার করেছেন মুসলিম সম্প্রদায়ের শেষ ঠিকানা কবর খননের কাজে। কোন বিনিময় না গ্রহণ করে ২হাজার ৫৬৫ টি কবর খনন করেছেন জীবনের দীর্ঘ ৬৪ বছরে। ব্যতিক্রমী এ কাজের মাধ্যমে মনু মিয়া মানুষের প্রতি নিঃস্বার্থ সেবাপরায়নতার অনন্য এক দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করে চলেছেন।

কিশোরগঞ্জ জেলার ইটনা উপজেলার জয়সিদ্ধি ইউনিয়নের আলগাপাড়া গ্রামে এক কৃষক পরিবারে জন্ম মনু মিয়ার। ছোট বেলা থেকেই স্থানীয় আত্মীয় স্বজনের সাথে কবর খননের কাজ করতেন।

ব্যাপক আগ্রহ থাকার কারনে এ কাজকেই তিনি জীবনের ব্রত হিসাবে গ্রহণ করেন। একজন দক্ষ কবর খননকারী হিসাবে তার সুনাম রয়েছে ইটনা, মিটামইনসহ পার্শ্ববর্তী এলাকায়।

নিজ খরচে মজবুত টেকসই ও মজবুত করে খুন্তি, কোদাল, ছুরি, দা, করাত ছেনাসহ নানান যন্ত্রপাতি তৈরি করেছেন মনু মিয়া। কোন খরচ গ্রহণ করেন না পরিশ্রমী মনু মিয়া। ক্লান্তিহীন মনু মিয়া তার কাজের জন্য পেয়ে চলেছেন মানুষের শ্রদ্ধা, ভালবাসা ও সম্মান।

মনু মিয়ার সাথে কথা বলে জানা যায়, তিনি ঢাকার বনানী কবরস্থানসহ দেশের নানা স্থানে কবর খনন করেছেন। এ পর্যন্ত ২ হাজার ৫৬৫ টি কবর খনন করেছেন। কোথাও যদি বেড়াতে গিয়ে মৃত্যুর কথা শুনেছেন তখন সেখানে গিয়েও কবর খননের কাজে সামিল হয়েছেন।

তিনি আরো জানান, শুরুতে স্ত্রী রহিমা বেগম আপত্তি তুললেও এখন সমর্থন দিয়ে চলছেন। সকল মানুষের ভালবাসা পাই ্এঁটাই আমার শান্তি।

মনু মিয়ার স্ত্রী রহিমা বেগম জানান, এমনও হয়েছে শরীরে ভীষন জ্বর হাটতে কষ্ট হচ্ছে এমন সময় শুনতে পেয়েছেন একজনের কবর খনন করতে হবে, সাথে সাথে যন্ত্রপাতি নিয়ে অসুস্থ শরীরে কবর খনন করতে ছুটে গেছেন।তিনি আরো জানান আমাদের সন্তানাদী নেই তাই মানুষের আন্তরিকতা ও ভালবাসাই আমাদের সম্পদ।

আপনার মন্তব্য লিখুন…

Loading...

About Rezaul Khan

Check Also

যুগলের সঙ্গমের মুহূর্ত রেকর্ড করে তা ছড়িয়ে দেওয়া হয় সোশ্যাল সাইটে।

Loading... লজ্জার মাথা খেয়ে সমুদ্র সৈকতে সঙ্গমে মিলিত হলেন এই দম্পতি- লাজলজ্জার মাথা খেয়ে সমুদ্র …