রাজনৈতিক
Trending

শেখ হাসিনার আঙ্গুলের ইশারায় খালেদা জিয়া জেলে’

Dhakanewsbd
আজকের প্রতিবেদন
শেখ হাসিনার আঙ্গুলের ইশারায় খালেদা জিয়া জেলে যাবেন’

বিএনপির কার্যনির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ও কুমিল্লা বিভাগীয় গণসমাবেশ বাস্তবায়ন কমিটির দলনেতা বরকতউল্লাহ ভুলু বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কোনো দুর্নীতি করেন নাই। তিনি আইনের নয়, বরং শেখ হাসিনার আঙ্গুলের ইশারাতাইে জেলে আছেন। নিরাপরাধ খালেদা জিয়াকে যেভাবে শাস্তি দেয়া হয়েছে তার বিচার জনতার আদালতে হবে।

(৫ নভেম্বর) ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকায় জেলা বিএনপি আয়োজিত এক সভায় এ সব কথা বলেন তিনি। আগামী ২৬ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য কুমিল্লা বিভাগীয় সমাবেশ সফল করতে এ সভার আয়োজন করা হয়।

সভায় ভুলু বলেন, আশা করি সরকারের শুভ বুদ্ধির উদয় হবে। শেখ হাসিনার বাঁচার একমাত্র রাস্তা হচ্ছে বেগম খালেদা জিয়ার কাছে ক্ষমা চাওয়া, তার সাথে আপস করা

জেলা বিএনপির আহ্বায়ক জিল্লুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রস্তুতি সভায় আরও বক্তব্য দেন কুমিল্লা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মোশতাক আহমেদ, কুমিল্লা বিভাগীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক সাঈদুল হক সাঈদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি হাফিজুর রহমান মোল্লা কচি, সাবেক সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক খোকন, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিরাজসহ প্রমুখ।
শনিবার (৫ নভেম্বর) রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী যুবলীগের ৫০ বছর পূর্তি ও সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে যুব মহাসমাবেশের স্থান পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি। আগামী ১১ নভেম্বর এ যুব মহাসমাবেশ করবে যুবলীগ।

নানক বলেন, রাজনীতিতে একটা শিষ্টাচার রয়েছে। রাজনীতিতে একটি গতানুগতিক প্রথা রয়েছে। বিএনপি নামক দলটি কিন্তু রাজনৈতিক শিষ্টাচার বহির্ভূতভাবে কথা বলে, অশালীন কথা বলে। সে কারণে আমি রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে ফিরে আসার জন্য বিএনপিকে অনুরোধ করব।

নানক বলেন, বিএনপিকে মনে রাখতে হবে যে- কোনোভাবেই অগ্নিসন্ত্রাস বা লাঠি নিয়ে মিছিল করা যাবে না। তাদের লাঠি মিছিল বন্ধ করতে হবে।
জাহাঙ্গীর কবির নানক আরও বলেন, আমাদের নেত্রীর পরিষ্কার নির্দেশনা হলো- কোনো আন্দোলন সংগ্রামে বাধা দেয়া যাবে না। যার যার কর্মসূচি পালন করতে হবে।

বিভিন্ন স্থানে পরিবহন বন্ধ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বাস-ট্রাক বন্ধ হচ্ছে একটি কারণে। এটি কিন্তু সরকারের পক্ষ থেকে কোনো নির্দেশনা দিয়ে করা হচ্ছে না। আতঙ্কের কারণে বাস-ট্রাক মালিক সমিতি বন্ধ করে দেয়। তারা দেখেছে যে- বিএনপি ও জামায়াতের কর্মীরা বাসে অগ্নিসন্ত্রাস করেছে, যাত্রীসহ বাস পুড়িয়ে দিয়েছে। যে মালিক বাসটি দেবেন, তার তো অনেক টাকা বিনিয়োগ আছে। কাজে এত টাকার সম্পৃক্ততা যার আছে- জ্বলে যেতে পারে, জ্বালিয়ে দিতে পারে- সেই আশঙ্কা থেকেই বাস বন্ধ করতে পারে।

নানক বলেন, আমরা যে মাঠটিতে দাঁড়িয়ে আছি, সেটি ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যান। এই ঐতিহাসিক মাঠেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ৭ মার্চের ভাষণ দিয়েছিলেন। বাঙালি জাতিকে মুক্তিযুদ্ধের দিকনির্দেশনা দিয়েছিলেন।

তিনি আরও বলেন, ডিসেম্বর মাস বিজয়ের মাস। এই বিজয়ের মাসকে সামনে রেখে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আগামী ১১ নভেম্বর এই মাঠে যুব মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। ১০ লক্ষাধিক যুবক এই সমাবেশে উপস্থিত থাকবে।

এ সময় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপিসহ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button