ফ্রিল্যান্সিং

আসুন জেনে নি সার্ভে কাজ কি

সার্ভে কি?
ইংরেজি Survey (সার্ভে) শব্দের অর্থ হল জরিপ। আমরা সবাই জড়িপ কাজের সাথে পরিচিত। যেমন আমরা মাঝে মাঝে এমন কিছু লোকের সাক্ষাত পাই, যারা আমাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে নানা ধরণের তথ্য সংগ্রহ করে থাকে। আর আমরাও আগ্রহ নিয়ে তাদেরকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করে থাকি। আমাদের দেশে বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকাও প্রতিদিন একটা বিষয়কে বাছাই করে পাঠকের নিকট (হ্যাঁ/না) মতামত জানতে চায়। আর আমরাও পছন্দ/অপছন্দ বিবেচনা করে মতামত দিয়ে থাকি। এই মতামত প্রদান করা ও তথ্য সংগ্রহ করার প্রক্রিয়াকে জড়িপ বলা হয়।
আমেরিকান সার্ভে কি?
আমেরিকান কাজ মানেই সব আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার। তারা অনলাইনে জড়িপ কাজ করে থাকে। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ, কোম্পানি, গবেষণা প্রতিষ্ঠান তাদের তথ্য সংগ্রহ করার জন্য অনলাইনে জড়িপ কাজ পরিচালনা করে। আমেরিকায় প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ জড়িপ কাজ হয়। মানুষের ব্যক্তিগত জীবন, পছন্দ-অপছন্দ, গাড়ি, বাড়ি, পেশা, পরিবার, দৈনন্দিন আয়-ব্যয়, খাবার, পোশাক, সকল ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য, ভ্রমণ, ভবিষ্যত পরিকল্পনা, রাজনীতি, অর্থনীতি, শিক্ষা, চিকিৎসা, স্বাস্থ্য, বিনোদন, সেবা, আইটিসহ সকল বিষয়ের উপর জড়িপ কাজ সম্পন্ন হয়। তাই ঐ সব প্রতিষ্ঠান বা কোম্পানিগুলো তাদের তথ্য সংগ্রহের জন্য বা মার্কেটে তাদের পণ্যর মান যাচাই বাছাই করার জন্য বিভিন্ন সার্ভে প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়। আর সেই সার্ভে প্রতিষ্ঠানগুলো কোম্পানির হয়ে অনলাইনে অর্থের বিনিময়ে জড়িপ কাজ পরিচালনা করে। এসব জড়িপ কাজে আমেরিকানরা অংশগ্রহণ করে কোম্পানির পণ্য সম্পর্কে তাদের ধারণা বা মতামত দিয়ে থাকে যার বিনিময়ে অংশগ্রহণকারীরা সামান্য পরিমাণ অর্থ পায়। এভাবে মার্কিন কোম্পানিগুলো মার্কেট জড়িপ করে থাকে। আমেরিকান সার্ভে সাইটগুলো কিভাবে কাজ করে? আমেরিকান সার্ভে সাইট বা প্রতিষ্ঠানগুলো মূলত অনলাইনে জড়িপ কাজ পরিচালনা করে। তারা অর্থের বিনিময়ে কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়। তারপর অনলাইনে প্রয়োজনীয় তথ্যাবলী সম্বলিত প্রশ্নাগুলো তাদের ওয়েবসাইটে ছেড়ে দিয়ে জণগণের জন্য উন্মুক্ত করে দেয় এবং অংশ গ্রহণকারীদের পারিশ্রমিক হিসেবে কিছু অর্থ প্রদান করে। তখন ঐ সার্ভে সাইটে একাউন্ট তৈরি করে অংশগ্রহণকারীরা মতামত দিলে বরাদ্ধকৃত অর্থ পেয়ে থাকে যা ডলার হিসেবে গ্রহণ করা হয়। বাংলাদেশ থেকে সার্ভে কাজ করে আয় করা সম্ভব: আপনি বাংলাদেশ থেকে আমেরিকান সার্ভে কাজে অংশগ্রহণ করতে পারেন। হাজার হাজার শিক্ষিত বেকার তরুণ এবং শিক্ষার্থীরা ঘরে বসে আমেরিকান সার্ভে কাজে অংশ নিয়ে ভালো পরিমাণ টাকা আয় করছে। আর কেবল আয় নয়, আপনি যদি শখের বসে হোক কিংবা পেশাগত কারণে হোক ভবিষ্যতে ফ্রিল্যান্সিং কাজ করতে চান, তাহলে সার্ভে কাজই হতে পারে আপনার হাতে খড়ি। কেননা, সার্ভে কাজ যে দিন থেকে শুরু করবেন, সেদিন থেকে আপনার কিছু আয় হবেই। আর কয়েক মাসের মধ্যে আপনার আয় 15,000+ হবে, এ কথা নিশ্চিত করে বলা যায় (যদি আপনি ধৈর্য্য সহকারে কাজ করেন)। তাই সার্ভে কাজের পাশাপাশি, আপনি অন্যান্য কাজও শিখতে পারবেন।
সার্ভে কাজ করতে কী কী উপকরণ লাগবে?
Computer/Laptop/Smart Phone
USA Residential IP (VPS/Proxy)
Internet Connection
USA Real Address
USA Phone Number for site verification
উক্ত সার্ভিসগুলো আপনি আমাদের কাছ থেকে গ্রহণ করতে পারেন।
সার্ভে কাজ করার জন্য আপনার ব্যক্তিগত প্রস্তুুতি:
ক. বেসিক ইন্টারনেট নলেজ, গুগল ব্রাউজ, এম সি কিউ এবং যে কোন সাইটে একাউন্ট ওপেন করা।
খ. রাত জেগে কাজ করতে হবে। কেননা আমাদের আমেরিকান অফিস টাইম মেনে চলতে হবে।রাত 8.00 থেকে সকাল 8.00 টা পর্যন্ত যতখুশি করতে পারবেন।
গ. খুব বেশি ইংরেজি জানার প্রয়োজন হয় না। মোটামুটি ইংরেজি বুঝতে পারলে হবে। আর গুগল সার্চ সম্পর্কে প্রাথমিক ধারণা থাকতে হবে। কেননা, এমন কিছু প্রশ্ন করা হবে হয়ত আপনি জানেন না। তখন গুগলে সার্চ করলে নিশ্চিত উত্তর পেয়ে যাবেন।
ঘ. সার্ভে কাজ খুব সহজ না আবার খুব কঠিনও না। মনযোগ সহকারে কাজ করলে প্রতিটি সার্ভেটে সফল হওয়া যায়। আজগুবি উত্তর দেওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।
ঙ. দৈনিক টার্গেট নিয়ে কাজ করলে অনায়াসে $15+ আয় করা সম্ভব।
চ. আমরা 100% পেমেন্ট করে এমন সাইট দিব। আপনি নিঃসন্দেহে কাজ করতে পারবেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button