বাংলাদেশ

গোসাইরহাটে মাছের ঘেরে মিললো কুমির

গোসাইরহাটে মাছের ঘেরে মিললো বৃহদাকার নোনা পানির কুমির
শাহাদাত হোসেন খান, শরীয়তপুর ।
শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার আলাওলপুর ইউনিয়নের মাছের ঘের থেকে উদ্বার করা হয়েছে বৃহদাকার একটি নোনা পানির কুমির । আতংকে আছে স্থানীয়রা ।
সোমবার( ১৪ নভেম্বর) রাত ৯টার সময় শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার আলাওলপুর ইউনিয়নের পাঁজালকান্দি গ্রামে খলিল কাজী ও শাখাওয়াত ঢালীর মাছের ঘের থেকে মৎস ঘেরের শ্রমিক রাশেদুল ইসলাম( ২৮), মোঃ সামাদ কাজী( ৫০) ও আব্দুর রউফ( ৬৫) মিলে কুমির টিকে ফাঁদ পেতে আটক করে । এরপর তারা স্থানীয় প্রশাসনকে জানালে তারা বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটকে খবর দেয় ।
এ বিষয়ে মৎস ঘেরের শ্রমিক রাশেদুল ইসলাম( ২৮) বলেন,’ আমি বিগত ১৫ দিন আগে কুমিরের পায়ের ছাপ দেখতে পাই । যেহেতু আমি সুন্দরবনে কাজ করতাম তাই আমি কুমিরের ছাপ চিনতে পেরেছি । পরে আমি কুমির ধরার জন্য ফাঁদ পাতলে গতকাল রাত ৯টার দিকে সে ফাঁদে আটকা পরে কুমির । এরপর আমরা ৩ জন মিলে কুমিরটিকে আটক করে প্রশাসনকে জানাই ।’
এরপর মঙ্গলবার( ১৫ নভেম্বর) বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের পরিচালক মোঃ সানাউল্লাহ্ পাটোয়ারির নেতৃত্বে ৫ সদস্যের একটি দল এসে কুমিরটিকে উদ্বার করে । উদ্ধাকৃত কুমিরটিকে প্রথমে খুলনার বয়রায় প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে সুন্দরবনের করমজল ব্রিডিং সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হবে বলে জানায় তারা ।
এ বিষয়ে বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের পরিচালক মোঃ সানাউল্লাহ্ পাটোয়ারি বলেন,’ জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে কুমিরটি এদিকে আসতে পারে । এছাড়া, ফ্রেশ ওয়াটারের স্তর কমে যাওয়া ও জোয়ারের সময় লবনাক্ত পানি প্রবেশ করায় এটি এদিকে আসতে পারে ।’
এ বিষয়ে গোসাইরহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাফি বিন কবির বলেন,’ আমরা খবর পেয়ে আমাদের মত করে ব্যবস্থা নিয়েছি । বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটকে খবর দিয়ে এনেছি । আমরা এখনো নিশ্চিত না যে আরেকটা কুমির আছে কিনা । তবে সবাইকে সতর্ক থাকার জন্য বলেছি ।’

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button