Saturday , 10 December 2022 | [bangla_date]
  1. আন্তর্জাতিক
  2. খেলাধুলা
  3. প্রবাস জীবন
  4. ফ্রিল্যান্সিং
  5. বাংলাদেশ
  6. বিনোদন
  7. মতামত
  8. রাজনৈতিক

বিদায় রোনালদো, রাঙানো হলো না শেষটা

প্রতিবেদক
Eman
December 10, 2022 11:18 pm

রাঙিয়ে দিয়ে যাও যাও, যাও গো এবার যাবার আগে ’ — রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের এ গানের সঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়ে বিশ্বজোড়া ক্রিস্টিয়ানোর রোনালদোর ভক্ত- সমর্থকেরাও প্রিয় তারকার কাছে এটাই চেয়েছিলেন! তাঁরা চেয়েছিলেন, ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপটা রোনালদো ভরিয়ে তুলবেন নিজের আলোয় ।
বিশ্বকাপ ট্রফি আর ছুঁয়ে দেখা হলো না পর্তুগিজ মহাতারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর । মরক্কোর কাছে ১- ০ গোলে হেরে কোয়ার্টার ফাইনালেই বিদায় নিয়েছে ফার্নান্দো সান্তোসের দল । বিশ্বকাপের শেষটা ভালো হলো না সিআর সেভেনের । শেষ দুই ম্যাচ তাকে প্রথম একাদশের রাখেননি পর্তুগিজ কোচ । আজকের ম্যাচের প্রথমার্ধে গোল খাওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধের ৫১ মিনিটে সান্তোস তাকে মাঠে নামালেও কিছুই করতে পারেননি । এভাবেই বিশ্বকাপ শেষ হয়ে গেল পর্তুগালের ।

দোহার আল থুমামা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচের প্রথমার্ধে বল দখলে এগিয়ে ছিল পর্তুগাল । কিন্তু মরক্কো সুযোগ তৈরি করেছে তাদের চেয়েও বেশি । ৫ম মিনিটে জোয়াও ফেলিক্সের জোরাল হেড ঝাঁপিয়ে ব্যর্থ করে দেন গোলরক্ষক ইয়াসিন বোনো । দুই মিনিট পর মরক্কোর হাকিম জিয়াশের কর্নার কিক থেকে ইউসেফ এন- নেসিরির হেড ক্রসবারের ওপর দিয়ে যায় । যদিও সেটা অফসাইড ছিল । ৪২তম মিনিটে এগিয়ে যায় মরক্কো ।
বয়স ৩৭ বছর হয়ে গেছে ঠিক, কিন্তু তাঁর আপন রঙে, ভেতরে লুকিয়ে থাকা চরম ইচ্ছাশক্তির গোপন রাগে তিনি বিশ্বকাপ রাঙাবেন — এমনটাই আশা ছিল রোনালদো- ভক্তদের!
সেই বিতর্ক মাথায় নিয়ে বিশ্বকাপে পা রাখলেন । এ বা ও — সবাই এ নিয়ে কথা বলতে শুরু করেন । রোনালদোকে কাছে না পেয়ে পর্তুগাল দলের হয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসতে থাকা সবাইকে প্রশ্নবাণে জর্জরিত করতে থাকেন সাংবাদিকেরা ।
রোনালদোও বিশ্বকাপ শুরুর আগে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন — বিশ্বকাপটা আপন রঙে রাঙাবেন । আর এর জন্য তিনি নিজেকে ভালোভাবে তৈরিও করে এসেছেন । কারও কারও ক্ষেত্রে নিজের সেরাটা বের করে আনতে নিজেকে তাতিয়ে তুলতে হয় । বিশ্বকাপে আসার আগে নিজেকে তাতিয়ে তোলার সেই অনুঘটক নিজেই ঢেলে দেন । ইংল্যান্ড থেকে কাতার আসার আগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড নিয়ে এক বোমা ফাটানো সাক্ষাৎকার দিয়ে বিতর্ক তৈরি করলেন নিজেই ।
রোনালদোর প্রতিশ্রুতির পথ ধরে তাঁর ভক্তরা স্বপ্ন দেখতে শুরু করেন । অতীতে ফুটবলের অনেক মহারথিরই তো একটি বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন পূরণ হয়নি । তালিকাটা খুব একটা ছোট নয় — ইয়োহান ক্রুইফ, ইউসেবিও, লুইস ফিগো, ডেভিড বেকহাম, সক্রেটিস,জিকো.আরও কত নাম! হাল আমলেও তো একটি বিশ্বকাপ শিরোপার স্বপ্নে বিভোর লিওনেল মেসি বা নেইমার । রোনালদোরও স্বপ্ন ছিল — ফুটবলকে বিদায় জানানোর আগে একটি বিশ্বকাপ জিতবেন!
ঘানার বিপক্ষে বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচের আগে সংবাদমাধ্যমের সামনে আবির্ভূত হন রোনালদো । সেখানে তিনি তাঁর সাক্ষাৎকার নিয়ে সতীর্থদের ‘ বিরক্ত ’ না করতে আহ্বান জানান সংবাদমাধ্যমকে । একই সঙ্গে বিশ্বজোড়া ভক্তদের উদ্দেশে বলে যান, ‘ আমি বিশ্বকাপে বিশেষ মুহূর্ত উপহার দেওয়ার জন্য নিজেকে খুব ভালোভাবেই প্রস্তুত করেছি । আশা করছি ভালো কিছুই হবে । ’
দোহার আল থুমামা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচের প্রথমার্ধে বল দখলে এগিয়ে ছিল পর্তুগাল । কিন্তু মরক্কো সুযোগ তৈরি করেছে তাদের চেয়েও বেশি । ৫ম মিনিটে জোয়াও ফেলিক্সের জোরাল হেড ঝাঁপিয়ে ব্যর্থ করে দেন গোলরক্ষক ইয়াসিন বোনো । দুই মিনিট পর মরক্কোর হাকিম জিয়াশের কর্নার কিক থেকে ইউসেফ এন- নেসিরির হেড ক্রসবারের ওপর দিয়ে যায় । যদিও সেটা অফসাইড ছিল । ৪২তম মিনিটে এগিয়ে যায় মরক্কো ।

বাঁ দিক থেকে ইয়াহিয়া আত্তিয়াত আল্লাহর ক্রস পোস্ট ছেড়ে এগিয়ে এসে পাঞ্চ করার চেষ্টায় ব্যর্থ হন পর্তুগালের গোলকিপার দিয়োগো কস্তা । তার এই মারাত্মক ভুলে দারুণ হেডে গোল করেন মরক্কোর নেসিরি । এই নিয়ে মরক্কোর প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে বিশ্বকাপে তিন গোল করলেন সেভিয়ার ২৫ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড ।
উরুগুয়ের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে মনে হয়েছিল পর্তুগালের প্রথম গোলটি তাঁরই । ব্রুনো ফার্নান্দেজের ক্রস থেকে অসাধারণ একটি ক্রসে হেড করেছিলেন রোনালদো । প্রথমে তাঁর নামেই গোল দেওয়া হয়েছিল । পরে টিভি রিপ্লেতে বোঝা গেল, বল রোনালদোর মাথা স্পর্শ করেনি । গোলটি পেলে বিশ্বকাপে পর্তুগালের হয়ে সর্বোচ্চ গোলে ইউসেবিওকে( ৯টি) ছুঁয়ে ফেলতেন তিনি । গোল পাননি গ্রুপ পর্বের তৃতীয় ম্যাচেও ।
বিরতির পর ৫১তম মিনিটে অবশেষে রোনালদোকে নামান পর্তুগাল কোচ সান্তোস । তার বদলি হিসেবে গত ম্যাচে হ্যাটট্রিক করা গনসালো রামোস আজ নিজের ছায়া হয়ে রইলেন । মাঠে নামার পর মুহুর্মুহু আক্রমণের চেষ্টা করেছেন সিআর সেভেন । কিন্তু পারেননি । ম্যাচের শেষ মুহূর্তেও রোনালদোর শট ঠেকিয়ে দেন বোনো । ইতিহাস গড়ে প্রথম আফ্রিকান দল হিসেবে বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে মরক্কো । চোখের জলে বিদায় নেয় পর্তুগাল ।
EN
By using this point, you agree to our sequestration Policy.
OK
ফুটবল
বিদায় রোনালদো, রাঙানো হলো না শেষটা
আবিদুল ইসলামঢাকা
প্রকাশ ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ ২০
কান্নায় রোনালদোর বিদায়
কান্নায় রোনালদোর বিদায়ছবি রয়টার্স
‘ রাঙিয়ে দিয়ে যাও যাও, যাও গো এবার যাবার আগে ’ — রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের এ গানের সঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়ে বিশ্বজোড়া ক্রিস্টিয়ানোর রোনালদোর ভক্ত- সমর্থকেরাও প্রিয় তারকার কাছে এটাই চেয়েছিলেন! তাঁরা চেয়েছিলেন, ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপটা রোনালদো ভরিয়ে তুলবেন নিজের আলোয় ।

বয়স ৩৭ বছর হয়ে গেছে ঠিক, কিন্তু তাঁর আপন রঙে, ভেতরে লুকিয়ে থাকা চরম ইচ্ছাশক্তির গোপন রাগে তিনি বিশ্বকাপ রাঙাবেন — এমনটাই আশা ছিল রোনালদো- ভক্তদের!

রোনালদোও বিশ্বকাপ শুরুর আগে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন — বিশ্বকাপটা আপন রঙে রাঙাবেন । আর এর জন্য তিনি নিজেকে ভালোভাবে তৈরিও করে এসেছেন । কারও কারও ক্ষেত্রে নিজের সেরাটা বের করে আনতে নিজেকে তাতিয়ে তুলতে হয় । বিশ্বকাপে আসার আগে নিজেকে তাতিয়ে তোলার সেই অনুঘটক নিজেই ঢেলে দেন । ইংল্যান্ড থেকে কাতার আসার আগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড নিয়ে এক বোমা ফাটানো সাক্ষাৎকার দিয়ে বিতর্ক তৈরি করলেন নিজেই ।

আরও পড়ুন
রোনালদোর বিশ্বকাপ স্বপ্ন ভেঙে মরক্কোর ইতিহাস
রোনালদোর কান্নাভেজা বিদায়
সেই বিতর্ক মাথায় নিয়ে বিশ্বকাপে পা রাখলেন । এ বা ও — সবাই এ নিয়ে কথা বলতে শুরু করেন । রোনালদোকে কাছে না পেয়ে পর্তুগাল দলের হয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসতে থাকা সবাইকে প্রশ্নবাণে জর্জরিত করতে থাকেন সাংবাদিকেরা ।
হতাশায় মুখ ডাকলেন রোনালদো
হতাশায় মুখ ডাকলেন রোনালদোছবি রয়টার্স
রোনালদোর প্রতিশ্রুতির পথ ধরে তাঁর ভক্তরা স্বপ্ন দেখতে শুরু করেন । অতীতে ফুটবলের অনেক মহারথিরই তো একটি বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন পূরণ হয়নি । তালিকাটা খুব একটা ছোট নয় — ইয়োহান ক্রুইফ, ইউসেবিও, লুইস ফিগো, ডেভিড বেকহাম, সক্রেটিস,জিকো.আরও কত নাম! হাল আমলেও তো একটি বিশ্বকাপ শিরোপার স্বপ্নে বিভোর লিওনেল মেসি বা নেইমার । রোনালদোরও স্বপ্ন ছিল — ফুটবলকে বিদায় জানানোর আগে একটি বিশ্বকাপ জিতবেন!
সেই স্বপ্ন পূরণের আশা নিয়েই মেসি- নেইমারের মতো কাতারে পা রেখেছিলেন রোনালদো । শুরুটাও ছিল আশাজাগানিয়া । ঘানার বিপক্ষে পর্তুগাল পেল ৩- ২ গোলের জয় । ৬৫টি মিনিটে দলের প্রথম গোলটি এনে দিয়েছেন রোনালদোই । হোক না পেনাল্টি থেকে, তবু তো প্রতিশ্রুতি রেখে শুরুটা গোলের রঙে রাঙিয়েছেন তিনি!
রোনালদো- বিতর্কের আগুন জ্বলছে

পর্তুগালের অনুশীলনে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো
উরুগুয়ের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে মনে হয়েছিল পর্তুগালের প্রথম গোলটি তাঁরই । ব্রুনো ফার্নান্দেজের ক্রস থেকে অসাধারণ একটি ক্রসে হেড করেছিলেন রোনালদো । প্রথমে তাঁর নামেই গোল দেওয়া হয়েছিল । পরে টিভি রিপ্লেতে বোঝা গেল, বল রোনালদোর মাথা স্পর্শ করেনি । গোলটি পেলে বিশ্বকাপে পর্তুগালের হয়ে সর্বোচ্চ গোলে ইউসেবিওকে( ৯টি) ছুঁয়ে ফেলতেন তিনি । গোল পাননি গ্রুপ পর্বের তৃতীয় শেষ ষোলোত জয়ে কোচ ফার্নান্দো সান্তোস রোনালদোকে শুরুর একাদশেই রাখেননি । এ নিয়ে আবার বিতর্ক ।

সর্বশেষ - বাংলাদেশ